Ek Deewana Tha (2012) | Amy Jackson | Prateik Babbar

Ek Deewana Tha (2012) | Amy Jackson | Prateik Babbar
Please wait 10 seconds...
Scroll Down & Click Get Link
Congrats! Link is Generated

প্রেমে পড়ার ক্ষেত্রে বড় আপু গুলোই পারফেক্ট!😌

Ek Deewana Tha (2012) | Amy Jackson | Prateik Babbar 

Ek Deewana Tha (2012) | Amy Jackson | Prateik Babbar

Movie Name :- Ek Deewana Tha (2012)

Genre : Romance / Drama 

Cast:Amy jackson, Prateik babbar

A perfect Love 😍

Rate IMDB 5.9/10 

My Rate 8/10 ♥

[ নো_স্পয়লার ]

▫️ভেবেছিলাম মুভিটা দেখিনি। কিন্তু দেখতে যেয়ে দেখি পরের সিন গুলো আমিই বলে দিচ্ছি। যাইহোক এরকম মুভি বারবার দেখলেও খারাপ লাগবে না। এইটা সাউথের এক মুভির অফিশিয়াল রিমেক আর পরিচালক সেই একই গৌতম মেনন। গল্প ভালোবাসার মানুষকে নিয়ে, গল্প ভালোবাসার পাগলামি নিয়ে। খুব ভালো একটি মুভি।

▫️প্রেম ভালোবাসা জীবনে তো আর বলে কয়ে আসে না। যখন আসে হঠাৎ করেই আসে। এখানে বয়স কিংবা ধর্মের পার্থক্য দেখার সময় কই! যখন একবার কেউ প্রেমে পড়ে তখন অন্য কিছু ভাবার সময় থাকে না, থাকে শুধু ভালোবাসার মানুষকে নিয়ে ভাবার সময়। কে জানি বলে গেছে বহুদিনের বন্ধুত্ব এক সময় ভালোবাসায় পরিণত হয়। তাই শুধু শুধু ফ্রেন্ড বলে ভালোবাসা লুকিয়ে রেখে লাভ কি! গল্পে এই ব্যাপার টা দারুণ ভাবে দেখানো হয়েছে। যাইহোক সব সম্পর্ক কি পূর্নতা পায়? এই মুভিতে কি পেয়েছিল?

▫️প্রতীক বব্বর এবং এমি জ্যাকসন দারুণ অভিনয় করেছে। বিশেষ করে শাড়িতে এমি কে খুবই স্নিগ্ধা লেগেছে। যে কেউ প্রেমে পড়ে যাবে আর তো নায়ক! অভিনয়ও খুব ভালো করেছে। এক্সপ্রেশন গুলো ছিল মন জুড়ে দেওয়ার মতো। নায়ক কিন্তু কম যায় না। তার এক্সপ্রেশন গুলোও ভালো ছিল। ডায়লগ ডেলিভারি পারফেক্ট লেগেছে। দুজনের দারুণ অভিনয়ে মুভিটি আরও দারুণ হয়ে উঠেছে। প্রিয় একজনের ক্যামিও কিন্তু ছিল।

▫️এ আর রহমানের মিউজিক মুভিটাকে আলাদা পর্যায়ে নিয়ে গেছে। কেরালার লোকেশন আমার সব সময় পছন্দের। এই মুভিতে সেই লোকেশন গুলো দারুণ ভাবে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। সিনেমাটোগ্রাফি সুন্দর ছিল। সবকিছু মিলিয়ে পারফেক্ট রোমান্টিক মুভি। যারা রোমান্টিক মুভি পছন্দ করে তারা বেশি উপভোগ করবে তাই না দেখলে দেখুন।

কলেজের প্রথম দিনে প্রথম ক্লাস করার জন্য বসে আছি।চোখে মুখে চাপা উত্তেজনা,কলেজে উঠে গেছি মানে বড় হয়ে গেছি।এর মধ্যে শিক্ষক প্রবেশ করলেন,সুনশান নীরবতা।তার কিছু পরেই কেউ একজন প্রবেশ করল,তাকে দেখে আমার মনে হল আমার চারপাশে কেউ নাই,কিছু নাই...শুধু সে আছে আর আমি আছি..কি অদ্ভুত সুন্দর এক অনুভুতি!! সিনেমাটার শুরু হয় এমনি এক অনুভুতিকে সাথে করেই,খুব সুন্দর মিষ্টি একটা প্রেমের গল্প।সিনেমাটা বেশ পুরোনো, অনেকেরই হয়ত দেখা।আমি দেখলাম এক বন্ধুর অনুরোধে,বন্ধু বলছিল ভাল লাগলে রিভিউ দিতে।তাই এই ক্ষুদ্র প্রচেষ্টা। এই সিনেমার মূল চালিকাশক্তি হল এর গল্প,গল্পটি সাধারণ হলেও একে উপস্থাপন করা হয়েছে অত্যন্ত সুন্দর করে।সিনেমাটা দেখতে দেখতে বলিউডের ছবি মনেই হচ্ছিল নাহ,মনে হচ্ছিল মায়াললাম কোন মুভি দেখছি।তাছাড়া এ,আর, রহমানের সুরে মুভির প্রতিটি গান ছিল ভাল,শ্রুতিমধুর। মুভির একটু দূর্বল দিক আমার মনে হইছে মুভির কাস্টিং। প্রতীক বাব্বর আর এমি জ্যাকসন দুজনকেই দেখতে অনেক ভাল লাগসে,বিশেষ করে এমিকে।কিন্তু তারা যেমন অভিনয় পারে তার সর্বোচ্চ চেষ্টাই তারা করছে কিন্ত মনে হয় তারপরেও কিছু ঘাটতি রয়ে গেছে।তারপরেও সুন্দর গল্প,পরিচালকের মুন্সিয়ানার কারনে মুভিটি ২.৩০ মিনিট তার দর্শকদের তার সাথে বেধে রাখতে সক্ষম।

সর্বোপরি বেশ ভাল একটা মুভি।রোমান্টিক মুভি যারা পছন্দ করেন তাদের জন্য ত মাস্ট ওয়াচ।পরিশেষে কোন রেটিং দিলাম নাহ,আমি চলচ্চিত্র বোদ্ধা নাহ,চলচ্চিত্র অনুরাগী। তাই রেটিং দেয়া টা ঠিক সাজে নাহ।তবে মুভিটা সুন্দর, আশা করি যারা দেখবে সবারই ভাল লাগবে।ধন্যবাদ।

ভালোবাসার মুভি, আমার দেখা রোমান্টিক মুভির ভিতরে সবার উপরে। 

ভালোবাসাকে এত সুন্দর করে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে যেটা না দেখলে আমি মনে করি আপনি এখনো ঘুমিয়ে আছেন। 

এক দেখায় ভালো লেগে যাওয়া তার সাথে এতো সুন্দর মিউজিক দিয়ে গল্পটাকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া । প্রথম দেখায় একটা ছেলে কি পরিমান ভালোবেসে ফেলে সেটা দেখার জন্য হলে ও মুভিটা দেখা দরকার। 

বোনকে পটানো / গার্লফ্রেন্ডের ভাই কে মারা / গার্লফ্রেন্ডের বিয়ে হয়ে যাবার সময়ে সেখানে উপস্থিত থাকা / সব মিলিয়ে মুভিটা আপনাকে হতাশ করবে না। তাই দেরি না করে মুভিটা দেখে নিন ( youTube) 

(আমার প্রথম রিভিউ ভুল হলে মাফ করবেন) 

একটা প্রশ্ন যারা দেখেছেন তার বলতে পারবেন

আর যারা দেখেন নাই তারা দেখে এসে উত্তর দিয়েন

প্রশ্ন :- এই মুভির ভিতরে নায়ক আর নাইকার ভিতরে একটা টুইস্ট আছে সেটা কি.. .?  

উত্তর কমেন্ট করে জানাবেন

#হালকা_স্পয়লার ⚠️

🌸মাঝে মাঝে মন খারাপ হয়, ভীষণ মন খারাপ হয়। আমার একটা অভ্যাস মন খারাপ থাকলেও মুভি দেখি মন ভালো থাকলেও মুভি দেখি। আরো একটা অভ্যাস হচ্ছে মাঝে মাঝে পুরো মুভি গুলো দেখি। ভালোই লাগে।দেখি আর ভাবি সে সময় কার সাথে বসে মুভিটা দেখেছিলাম কেমন ছিলো সে অনুভূতি! মাঝে মাঝে তো আবার মুভির কাহিনি ভুলে যাই তাই আবার দেখি। এই মুভিটা দেখেছিলাম আমি যখন কলেজে পড়ি। সে সময় খুব ভালো লেগেছিলো মুভিটা। হাতে এত এত মুভি থাকার পরেও কেনো জানি আজকে হুট করে এই মুভিটাই দেখতে ইচ্ছে হলো,তাই আবারো দেখলাম।

🌸খুব সুন্দর মিষ্টি একটা প্রেমের গল্প।ভালোবাসা তো হয়ে যায়। যার প্রতি একবার ভালোবাসা হয়ে যায় তার সাথে কি আর বন্ধুত্ব চলে! বললেই হয়ে গেলো নাকি! মুভির গল্প টা দুর্দান্ত। দুটো দুই ধর্মের মানুষ।ছেলেটা হিন্দু মেয়েটা খ্রিস্টান, ছেলেটা বয়সে ছোট মেয়েটা বড়।ছেলে তো ফিল্ম মেকার হতে চায়,আর মেয়ে কেরালার হয়েও মোহনলাল কে চিনে না।মানে তার পরিবার মুভি টুভি দেখে না। তাহলে এই দুই মেরুর মানুষের ভালোবাসা হবে কিভাবে!হাহাহা মজা আছে ভাই,প্রেমের টানে মানুষ কই থেকে যে কই চলে যায়!আর আমাদের গল্পের নায়ক মুম্বাই থেকে যায় কেরালা। 

🌸মুভির শুরুটাই দেখায় নায়িকার বিয়ে নিয়ে।শুরুতেই যদি মেয়ের বিয়ে দেখায় তাও আবার অন্য কোন ছেলের সাথে, আর মুভির নায়ক সে বিয়েতে অতিথি তাহলে বাকী মুভি কেমন হতে পারে চিন্তা করেন। দুটো মানুষের ভালোবাসা খুব মিষ্টি, খুব চমৎকার লেগেছে আমার কাছে। মুভির নায়িকা Amy Jackson মেয়েটা মানুষ নাকি পুতুল ভাই! এত সুন্দর একটা মানুষ কিভাবে হতে পারে! তার হাসি তার কথা বলা তার চলন, তার অভিনয় এক কথায় অসাধারণ। অন্যদিকে আমাদের রোমিও Prateik Babbar তো দুর্দান্ত পারফর্ম করেছেন। ভালোবাসার জন্য কিই না করলো ছেলেটা!

🌸মুভির সিনেমাটোগ্রাফি, ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক ছিলো অসাধারণ। তা ছাড়া কেরালার কিছু দৃশ্য চমৎকার ভাবে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে। সেই সাথে মুভির গান গুলো উফ্! আমার মনে হয় যারা মুভিটা দেখেন নাই তাদের একবার হলেও এই মুভিটা দেখা উচিৎ। সময় টা নষ্ট হবে না। তাহলে আর কি! শেষ করি রিভিউ।যারা দেখেন নাই দেখে জানাবেন আপনাদের মুভিটা কেমন লেগেছে।আর রিভিউটা কষ্ট করে পড়ার জন্য সবাইকে অনেক ধন্যবাদ 

Ek Deewana Tha (2012) | Amy Jackson | Prateik Babbar
Ek Deewana Tha (2012) | Amy Jackson | Prateik Babbar 

#Movie Name : Ek Deewana Tha

Movie Review : এই গ্রুপে রোমান্টিক টাইপের মুভির অনেক রিভিউ দেখি। কিন্তু অবাক হই এই মুভিটার রিভিউ কখনো দেখি নাই। যারা রোমান্টিক টাইপ মুভি পছন্দ করেন তাদের জন্য এটা একটা মাস্টার পিছ মুভি। মুভির গল্পের পাশাপাশি এ.আর. রহমানের মিউজিক ছবিটাকে আরো আকর্ষণীয় করে তুলেছে।

ছবিটির অন্যতম প্রধান চরিত্র শ্চীন ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং এ পড়ছে এবং পাশাপাশি একজন এসিসটেন্ট ফিল্ম মেকার। শচীন একদিন হঠাৎ আবিষ্কার করলো তার পাশের বাড়ির একজন সুন্দরী মেয়েকে। প্রথম দেখাতেই শচীন মেয়েটার প্রেমে পরে যায়। মেয়েটার নাম জেসি। ধর্মে খ্রিস্টান। অন্যদিকে শচিন হিন্দু। পাশাপাশি মেয়ের ভাই এবং বাবা ছিলো খুব ই বদ মেজাজি। শচীন কিছুতেই তার ফিলিংস জেসির কাছে প্রকাশ করতে পারছে না।

শচীন কি শেষ পর্যন্ত তার মনের কথা জেসিকে বলতে পেরেছে? তাদের কি প্রেম হয়ে ছিলো? তাদের প্রেমের শেষ পরিনতি কি ছিলো?  

এই সব প্রশ্নের উত্তর পেতে হলে ঝটপট মুভিটি দেখে ফেলু

কারাগার

এ এক না অনেক অনেক রং

কারন, এ এক ভালোবাসারর রং

যতোটা ছড়াবে ততটাই রঙ্গিন হবে মন।

চারিদিক রল এর সাথে সাতে সুগন্ধ ও ছড়াবে. 

এক নতুন ভালোলাগা, অজান্তেই ভালোবাসা।

তারপর আরো একটু বেশী, জানতে যাওয়া।

সারাক্ষন পাশে পাশে থাকা এই 😍

কিন্তু সব কিছুতেই খারাপ তো কিছু থাকবেই,

এখানেও তাই ঘটে, 

ধর্ম, কালচার,সমাজ, বয়স, পছন্দ

সব সব কিছুই বাধা হয়ে ধারায়, 

তারপরেও নিজেকে দাড়া করানোর গল্প হলো ভালোবাসা, আর ভালোবাসায় রাগ, ঘৃনা,অভিমান,ঝগড়য়, দূরে সরে যাবে না তাকি হয়, তাহলে তো ভালোবাসায় অসম্পূর্নই থেকে যাবে।

সম্পর্ক শুরু থেকে শেষ পুরোটার গল্প বলার ধরনটাই এক ভালোলাগা 😍

সম্পর্ন মাসালা সহ পিউর লাভ স্টোরী পাবেন, সাথে অনেক গুলো ভালো ভালো গান. 

মুভির স্টোরী লাইন, ডিরেকশন,কাস্ট, ডায়লগ, লোকেশন, ব্যাকগ্রাউন্ড মিউজিক সব একটু বেশীই ভালো লাগলো আমার কাছে, স্পেশালী এর গান গুলো, সব সময় ভালো লাগে। আর গান গুলো শুনার সময় বারবার মুভির কথাও মনে পরে, একবার না কয়েকবার দেখার মতো মুভি 😍

যতবার দেখি ততবার ই ভালো লাগে,

ভালো লাগার এক জাদু যেন 😍

ভালাবাসার দ্বিতীয় এক মুভি

HappyWatching 🥤

Cookie Consent
We serve cookies on this site to analyze traffic, remember your preferences, and optimize your experience.
Oops!
It seems there is something wrong with your internet connection. Please connect to the internet and start browsing again.